লবঙ্গ লতিকা | Labanga Latika | Bengali Recipe | বাঙালি রান্নার রেসিপি

লবঙ্গ লতিকা| বাঙালি রান্নার রেসিপি | Bengali Recipe  | Labanga Latika 

স্বাগত জানাই আমাদের চির পরিচিত রান্নাবান্না - বাংলা রেসিপি পেইজ
আজ যে রেসিপি শেয়ার করবো সেটা নববর্ষের মিষ্টি মুখের জন্য . নিজের ঘরে তৈরি করুন কম সময়ের মধ্যে দারুণ স্বাদের মিষ্টি. আর তার নাম লবঙ্গ লতিকা.
লবঙ্গ লতিকা| বাঙালি রান্নার রেসিপি | Bengali Recipe  | Labanga Latika


লবঙ্গ লতিকা | Labanga Latika | Bengali Recipe | বাঙালি রান্নার রেসিপি

লবঙ্গ লতিকা বানানোর জন্য যে যে উপকরণ গুলি লাগছে সেগুলি হলো -

উপকরণ

১. ময়দা (২ কাপ) 
২. ঘি (১ কাপ) 
৩. নুন পরিমাণ মতো 
৪. তেল (২ কাপ তেল) 
৫. নারকেল কুরো ( ২ নারকেল) 
৬. এলাচ (২ দানা) 
৭. পাটালি গুড় (হাফ কাপ) 
৮. চিনি (দেড় কাপ) 
৯. লবঙ্গ (৪-৫ দানা) 


পদ্ধতি 

  লবঙ্গ লতিকা বানানোর জন্য প্রথম  ময়দা (২ কাপ) একটা বাটিতে নিয়ে তার মধ্যে পরিমাণ মতো নুন, ঘি (২ টেবিল চামচ) দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে. 

এবার দেখতে হবে ঘি টা ঠিক করে মিশেছে কি না দেখতে ময়দা টাকে একটু হাতে নিয়ে চেপে ধরলে লাড্ডুর মতো হয়ে যাবে. 

এখন একটু একটু করে জল দেবো আর ময়দা টাকে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে. 

ওই ময়দা টাকে এমন করে মেশাতে হবে যাতে নরম না থাকে একটু শক্ত রাখতে হবে. ওই মিশিয়ে নেওয়া ময়দা টাকে ৩০ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে. যাতে ভালো করে মেশে. এই ৩০ মিনিটের মধ্যে পুর বানিয়ে নিতে হবে.

 পুর বানানোর জন্য একটি কড়াইতে কিছুটা ঘি (২ চামচ) দিয়ে দিতে হবে. হালকা আঁচে ঘি টা গরম করে তার মধ্যে  এলাচ (২) দিয়ে একটু গরম করে নিয়ে তার মধ্যে নারকেল কুরো দিয়ে ৩০ সেকেন্ড নাড়তে হবে. 

নাড়ার পর এর মধ্যে পাটালি গুড় (৫০ গ্রাম), চিনি (৪ টেবিল চামচ) দিয়ে ভালো করে মিলিয়ে নিতে হবে. চিনি টা আপনারা পরিমাণ মতো দেবেন. শুধু চিনি দিলেও হবে. গুড় আর চিনি ভালো করে মেশানোর জন্য একটু নাড়তে হবে. 

মিশে গেলে নামিয়ে ঠান্ডা করতে হবে. এরপর মিশিয়ে রাখা ময়দা টা ৩০ মিনিট হয়ে গেলে আর একটু ভালো করে ময়দা টা মিশিয়ে ছোটো বড়ো যেরকম সাইজ এর পারেন লেচি কেটে নেবেন আপনার সুবিধা মতো. 

এরপর লেচি টাকে ভালো করে গোল করে নিতে হবে. এরপর ওই গোল টাকে রুটির মতো বেলে নিতে হবে. বেলে নেওয়ার পর ওই রুটির মধ্যে তৈরি করা পুর দিতে হবে পরিমাণ মতো. 

এরপর রুটির সাইট গুলোতে জল দিতে হবে এক সাইটে ভাঁজ করে দিতে হবে এবং ওই ভাঁজ এর ওপর চাপ দিয়ে দিতে হবে একইরকম ভাবে ওপর দিকের সাইটে ও করতে হবে. 

এরপর রুটি টাকে উল্টে দিয়ে একটু জল দিতে হবে. আসলে জল দিলে রুটির ভাঁজ টা আটকে রাখতে সাহায্য করে. ভাজার সময় খুলে না যায়. জল টা আঁঠার মতো কাজ করে. 

এরপর উল্টো দিকের রুটির মধ্যে জল দিয়ে ভালো করে আটকে দিতে হবে এবং যেহেতু এটা লবঙ্গ লতিকা তাই একটি লবঙ্গ ওই ভাঁজ এর ওপর দিয়ে দিতে হবে. 

এটা দেখতে ও সুন্দর লাগে. এরপর লবঙ্গ লতিকা ভাজার জন্য একটি কড়াইতে কিছু টা তেল দিয়ে গরম করতে হবে  হালকা আঁচে. 

লবঙ্গ লতিকা ভাঁজতে হবে হালকা আঁচে যাতে বেশি ভাজা না হয়ে যায়. বেশি ভাজা হয়ে গেলে লুচির মতো হয়ে যাবে. তাই তেল গরম হয়ে গেলে তেলের মধ্যে একটা একটা করে লবঙ্গ লতিকা ছাড়তে হবে. 

আসতে আসতে ও গুলো কে নাড়তে হবে এপিঠ ওপিঠ করে যাতে ভালো করে ভেজে বাদামি কালার হয়. ভাজা হয়ে গেলে এরপর চিনি রস তৈরি করতে হবে. 

চিনি রস তৈরি করার জন্য একটি কড়াইতে জল( হাফ কাপ) আর চিনি ( ১ কাপ) দিয়ে হালকা আঁচ এ আসতে আসতে নাড়তে হবে চিনি মিলিয়ে যাওয়া পর্যন্ত. 

চিনি মিলিয়ে যাওয়ার পর আরো ২-৩ মিনিট নাড়ার পর একটি একটি করে লবঙ্গ চিনি রসে ভালো করে মাখিয়ে নামিয়ে নিতে হবে. 

এরকম করে প্রত্যেকটি লবঙ্গ লতিকা ভাজতে হবে. তারপর থালায় সাজিয়ে দিন আপনার বানানো সুস্বাদু মিষ্টি. 

এভাবে তৈরি হয়ে যাবে নববর্ষের সুস্বাদু মিষ্টান্ন লবঙ্গ লতিকা

শুভ নববর্ষের প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানাই সবাইকে. 

আপনারা অবশ্যই এই লবঙ্গ লতিকা রেসিপি বাড়িতে চেষ্টা করুন বানানোর. বাইরে বেরোবেন না. সুস্থ থাকুন. ভালো থাকুন. ভালো খান.

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য